নির্বাচনী ইশতেহারে থাকবে জেলা সরকার: অর্থমন্ত্রী

Share this...
Print this pageShare on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, বর্তমানে দেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশের বেশি। এটাকে ১০ শতাংশে উন্নীত করতে জেলায় জেলায় সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারেও এটা উল্লেখ থাকবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার দেশে প্রচুর উন্নয়নমূলক কাজ করেছে। যা থেকে জনগণ উপকৃত হচ্ছেন। আশা করছি, আগামী নির্বাচনেও তারা বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠনে রায় দেবেন। আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে ২০২৩ সালের মধ্যে জেলায় জেলায় সরকার প্রতিষ্ঠা করবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

রবিবার জাতীয় জাদুঘরে ড. এ কে আব্দুল মোমেন রচিত ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা: প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি’ বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বইটি প্রকাশ করেছে চারুলীপি প্রকাশনী। এমিরেটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, লেখক ও গবেষক মফিদুল হক, একুশে টেলিভিশনের প্রধান সম্পাদক ও বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. আতাউর রহমান প্রধান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, জেলায় জেলায় সরকার গঠন মানে এই নয় যে, কেন্দ্রীয় সরকার থাকবে না। কেন্দ্রীয় সরকারও থাকবে। কেন্দ্রীয় সরকার দেশের সব উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে কাজ করবে। জেলা সরকার গঠন হলে এলাকার চাহিদা অনুযায়ী উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে সুবিধা হবে, জনসেবার মান বাড়বে। প্রতিটি মানুষ যেন জেলায় সব ধরনের সেবা পায় সেজন্যই এটি করা হবে।

তিনি বলেন, ২০২৪ সালের মধ্যেই দেশে আর দারিদ্র্য থাকবে না। অর্থমন্ত্রী তার ছোট ভাই ড. এ কে আব্দুল মোমেন রচিত বইয়ের বিষয়ে বলেন, বাংলাদেশ অভ্যুদয়ের ওপর ভিত্তি করে রচনা করা হয়েছে। এতে স্বাধীনতা আন্দোলন থেকে শুরু করে বর্তমান অবস্থার বিশদ বর্ণনা দেওয়া হয়েছে। বইটি আমাদের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসের অংশ হিসেবে বিবেচ্য হবে বলে আমি আশা করি।

Share this...
Print this pageShare on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *