চলন্ত বাসে হিন্দু তরুণীকে ধর্ষণ, আসামি রুবেল নিহত

Share this...
Print this pageShare on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn

বিডি নিউজ আই, ডেস্ক:ঢাকার সাভার উপজেলায় আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে হিন্দু তরুণীকে ধর্ষণ,ডাকাতি ও চালককে হত্যার ঘটনায় আসামি রুবেল পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে। আজ শুক্রবার ভোর ৪টার দিকে আশুলিয়ার টঙ্গাবাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রুবেল (২৫) টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল থানার লক্ষীন্দর গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে।

এ ঘটনায় পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) উপপরিদর্শক (এসআই) ও তিন কনস্টেবল আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে গুলি ও আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারী ভোরে টাঙ্গাইল থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা ইনসাফ পরিবহনের ‘ধলেশ্বরী’ নামের একটি বাসে ধর্ষণ, ডাকাতি ও চালককে হত্যার ঘটনাটি ঘটে।

আশুলিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলম জানান, ঘটনার দিন টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর এলাকায় পৌছালে যাত্রীবেশে ১৩ ডাকাত বাসে ওঠে। বাসটি নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কে ওঠামাত্র ডাকাতরা লুটপাট শুরু করে।এ সময় হিন্দু এক তরুণীকে তার মায়ের সামনেই ধর্ষণ করে ডাকাতরা।

এ সময় চালকের আসন থেকে নেমে এসে প্রতিবাদ জানালে ডাকাতদের ছুরিকাঘাতে মারা যান বাস চালক চালক শাহজাহান মিয়া। গুরুতর আহত হন হেলপার বাদশা মিয়া।

এ ঘটনায় আটক করা হয় ১২ ডাকাতকে। আদালতে দেয়া জবানবন্দীর ভিত্তিতে মূল হোতা হিসেবে নাম উঠে আসে রুবেলের।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও জানান, রুবেল আশুলিয়ার টঙ্গাবাড়িতে অবস্থান করছেন- এমন তথ্যের ভিত্তিতে শুত্রবার ভোরে অভিযান চালায় ডিবি।

আশুলিয়া থানার এসআই কালাম আজাদ জানান,পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সহযোগীদের নিয়ে রুবেল পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় দুই পক্ষের গোলাগুলিতে গুরুতর আহত হয় রুবেল। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রুবেলকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

Share this...
Print this pageShare on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *