‘কারাগার থেকে বন্দীদের কথোপকথন রেকর্ড করা হবে’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার প্রেক্ষিতে কারাবন্দীদের আত্মীয়-স্বজনদের সাথে টেলিফোনে (মোবাইল) কথা বলার পাইলট প্রকল্প টাঙ্গাইল জেলার কারাগারে শুরু হয়েছে। টেলিফোনে কথা বলার এ কার্যক্রম অন্যান্য কারাগারের চালু করার জন্য দেশের সকল কারাগারে ‘প্রিজন লিংক স্থাপন’ শিরোনামে একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে একটি নীতিমালার ভিত্তিতে মনিটরিং করা হবে। বন্দীদের আত্মীয়-স্বজনদের সাথে মোবাইলফোনে কথোপকথন রেকর্ড করা হবে। সিনিয়র জেল সুপারের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের একটি কমিটি সার্বিক বিষয়টি মনিটরিং করবে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে আজ একাদশ সংসদের অধিবেশনে দিদারুল আলমের (চট্টগ্রাম-৪) তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব তথ্য জানান।
প্রশ্নকর্তা করাগারে বন্দীদের মোবাইল ব্যবহারের সুবিধা দেওয়ার সরকারি উদ্যোগের প্রশংসা করে এরমাধ্যমে বন্দীরা জেলখানা থেকে নতুন কোন অপরাধে যাতে মদদ দিতে না পারে এ বিষয়ে কী পদ্ধতি গ্রহণ করা হবে-তা জানতে চান। জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, জঙ্গি, টপটেরর ও বিভিন্ন আলোচিত মামলার স্পর্শকাতর বন্দীদের এ সুবিধার বাইরে রাখা হবে। এজন্য কারাগার থেকে মোবাইলফোনে অপরাধে মদদ দেয়ার কোনো সুযোগ থাকবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *