কাস্টমস আধুনিকায়নে কৌশলগত কর্ম পরিকল্পনা প্রকাশ

বিডি নিউজ আই ঢাকা : জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) কাস্টমস আধুনিকায়নের কৌশলগত কর্ম পরিকল্পনা ২০১৯-২০২২ প্রকাশ করেছে। এই কৌশলগত কর্ম পরিকল্পনায় বাংলাদেশ কাস্টমসের আগামী চার বছরের তথ্য-ভিত্তিক, ফলাফল নির্ভর এবং সময়-ভিত্তিক উন্নয়ন পরিকল্পনা বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে।
এ উপলক্ষে বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে প্রকাশনা উৎসবের আয়োজন করা হয়।
এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূইয়ার সভাপতিত্বে প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে এনবিআরের সদস্য (কাস্টমস নিরীক্ষা, আধুনিকায়ন ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্য) খন্দকার আমিনুর রহমান,বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান, বিশ্বব্যাংক গ্রুপের জ্যেষ্ঠ অর্থনীতিবিদ ড. মাশরুর রিয়াজ,শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড.মো. শহিদুল ইসলাম,যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগি সংস্থার (ডিএফআইডি) বেসরকারিখাত বিশেষজ্ঞ মাশফিক ইবনে আকবার প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।
ড. মসিউর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, বাণিজ্য উদারীকরণ বা সহজীকরণের ক্ষেত্রে কর ব্যবস্থা ও ট্যারিফ কাঠামো যৌক্তিক হওয়া অপরিহার্য। আশা করি কৌশলগত পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যবসা সহজীকরণ সূচকে এগিয়ে যাবে।
তিনি বলেন,রাজস্ব প্রশাসনের যেকোন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে কর্মকর্তাদের ইতিবাচক আচরন অতি জরুরী। ইতিবাচক আচরন ছাড়া যত ভাল পরিকল্পনাই হোক সেটার কার্যকর বাস্তবায়ন সম্ভব নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।
অনুষ্ঠানে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূইয়া বলেন, সারাবিশ্বে বাণিজ্য সহজীকরণের ক্ষেত্রে কাস্টমস আধুনিকায়ন আলোচিত বিষয়। আমরাও এখন বাণিজ্য সহজীকরণের জন্য কাস্টমস আধুনিকায়নের ওপর গুরুত্ব দিচ্ছি।
তিনি কাস্টমস আধুনিকায়নের জন্য জুনিয়র কর্মকর্তাদের প্রযুক্তি ব্যবহারের দক্ষতা অর্জনের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। বলেন,এসি,ডিসি পর্যায়ের কর্মকর্তাদের প্রযুক্তির ব্যবহার শিখতে হবে। যারা প্রযুক্তির ব্যবহার শিখবেন না, তারা পিছিয়ে পড়বেন। কাস্টমস আধুনিকায়ন ও কর্মকর্তাদের দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য অনেক সহজ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
খন্দকার আমিনুর রহমান বলেন,আন্তর্জাতিক বাণিজ্য প্রক্রিয়া সহজীকরণ এবং কাস্টমস আধুনিকায়নের লক্ষে এনবিআর নানা সংস্কার কর্মসূচি বাস্তবায়ন শুরু করেছে। পণ্য খালাসে বিশেষ বাণিজ্য সুবিধা দিতে অথারাইজড ইকোনমিক অপারেটর (এইও) এবং অ্যাডভ্যান্স রুলিং পদ্ধতি চালু করা হয়েছে।
তিনি জানান,কৌশলগত কর্ম পরিকল্পনা মোতাবেক আগামী চার বছরে কাস্টমস আধুনিকায়নে অনলাইনভিত্তিক সেবা চালু এবং বাণিজ্য সহজীকরণে নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে।
এফবিসিসিআইয়ের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান কাস্টমস আধুনিকায়নের পাশাপাশি বাণিজ্য সহজীকরণে অন্যান্য সেবাসমূহ অনলাইনভিত্তিক করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
বিশ্বব্যাংক গ্রুপের ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশনের (আইএফসি) অর্থায়নে এনবিআর কাস্টমস আধুনিকায়ন কৌশলগত কর্ম পরিকল্পনা প্রনয়ন করেছে।(বাসস)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *