খালেদা জিয়ার মুক্তি পাওয়া উচিত : ড. কামাল হোসেন

বিডি নিউজ আই ডেক্স :

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি যুক্তিসঙ্গত। অবিলম্বে তার মুক্তি পাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রধান নেতা ড. কামাল হোসেন।

শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে গণশুনানির সমাপনীতে তিনি এ মন্তব্য করেন।

কামাল হোসেন বলেন, ‘আজকের গণশুনানিতে খালেদা জিয়ার মুক্তি একটি প্রধান দাবি। এটা নিয়ে আগেও জোরালো দাবি এসেছে। গণশুনানি থেকেও আমরা এই দাবি জানাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘এটা দুঃখজনক। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পরও আমাদের এ ধরনের দাবি করতে হচ্ছে। গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য যারা ভূমিকা রেখেছেন, তারা কারাবন্দি।’

ড, কামাল হোসেন বলেন, ‘গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের ডাক দিয়ে যাচ্ছি, করে যাচ্ছি। আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ করেছি ৪০ বছর। আজকের আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর নয়। এখানে এক ব্যক্তির শাসন চলছে, যা ইচ্ছে তাই হচ্ছে। আমি দলের কোনো দোষ দিচ্ছি না। দোষ ব্যক্তির। যারা এমনটা করছেন, তাদের বলছি— আপনারা মারা গেলে উত্তরসূরিরা লজ্জা পাবেন।’

নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের নামে প্রহসন হয়েছে। এখন ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের মালিকানা ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করতে হবে। স্বৈরাচারকে সরাতে হবে।’

প্রবীণ এই আইনজীবী বলেন, ‘এদেশে কোনো দিন স্বৈরাচার স্থায়ী হতে পারেনি। আমরাও কোনো দিন স্বৈরাচার সরকারের শাসন মেনে নেইনি। এই সরকারও দীর্ঘদিন থাকতে পারবে না।’

এদিন গণশুনানিতে বিগত নির্বাচনে পরাজিত ৪০ প্রার্থী ও দুই এজেন্ট নির্বাচনের আগে-পরের চিত্র তুলে ধরে বক্তব্য দেন। নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা পরে শুনানি শেষ হওয়ায় ঐক্যফ্রন্ট নেতা আ স ম আব্দুর রব, মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ অনেকে বক্তব্য দিতে পারেননি।

গণশুনানির শুরুতে চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে হতাহতদের স্মরণে শোকপ্রস্তাব উপস্থাপন ও এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, গণফোরামের কার্যকরি সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্ট বার সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, সেলিমা রহমান, শামসুজ্জামান দুদু, গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. রেজা কিবরিয়া, নাগরিক ঐক্যের উপদেষ্টা এসএম আকরাম হোসেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার প্রমুখ।

বিডি নিউজ আই ডট কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *