না’গঞ্জে প্রকাশ্যে খুন

বিডি নিউজ আই, নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলায় সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রকাশ্যে আবুল হোসেন (৫০) নামে এক দিনমজুরকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করেছে সমন্ধীসহ তার পরিবারের লোকজনরা। ওই সময় হামলাকারীদের কবল থেকে দিনমজুরকে বাঁচাতে গিয়ে শিশুসহ কমপক্ষে ৪ জন আহত হয়েছে।

আহতরা হলো নিহতের স্ত্রী তাসলিমা বেগম (৪৫) মেয়ে ডালিয়া (২৫) জামাতা রুবেল (৩০) ও নাতনি হাফছা (৪)। স্থানীয় এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। শনিবার সকাল ৯টায় বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নস্থ নরর্পদীস্থ বাগপাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।
বন্দর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ১টি দা ও ২টি লাঠি উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে নিহতের ছেলে মোঃ কাজল মিয়া বাদী হয়ে ঘটনার ওই দিন দুপুরে বন্দর থানায় ৪ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

নিহতের স্ত্রী তাসলিমা বেগম সাংবাদিকদের জানায়, তার বাবা পীর মোহাম্মদ মিয়ার সম্পত্তি নিয়ে আমার বড় ভাই মোস্তফা মিয়া ও পরিবারের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। শনিবার সকালে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে বড় ভাই মোস্তফার সঙ্গে আমাদের কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে সকাল ৯টায় বড় ভাই মোস্তফা ও তার স্ত্রী মহাসেনা বেগম, সন্ত্রাসী ছেলে মোজাম্মেল হোসেন বাবু এবং মেয়ে সোহাগী আক্তার ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো অস্ত্রসস্ত্র ও লাঠিসোটা সোটা নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। ওই সময় হামলাকারি মোজাম্মেল হোসেন বাবু ধারালো দা দিয়ে আমার স্বামীকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। আমি ও আমার মেয়ে ডালিয়া ও জামাতা রুবেল বাধা দিলে তারা আমাদেরকে ও আমার অবুঝ নাতনি হাফসাকে বেদম ভাবে পিটিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। আমাদের চিৎকার শুনে এলাকাবাসী দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আমার স্বামী মারা যায়।

বন্দর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, হত্যাকাণ্ডের স্থান থেকে ১টি ধারালো দা ও ২টি লাঠি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। হত্যাকারীদের গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *