বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে ডিএমপি’র নির্দেশনা

বিডি নিউজ আই, ঢাকা; বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমাকে ঘিরে সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। ১৮ মে ২০১৯ অনুষ্ঠিতব্য বুদ্ধ পূর্ণিমাকে ঘিরে সকল ধরণের নিরাপত্তামূলক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে ডিএমপি।

আজ ১৩ মে ২০১৯ বেলা ১২টায় ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সে আসন্ন শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপন উপলক্ষে সার্বিক নিরাপত্তা, আইন-শৃঙ্খলা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা সংক্রান্তে সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম (বার), পিপিএম।

সমন্বয় সভায় বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও অনুষ্ঠানস্থল ঘিরে ডিএমপি কর্তৃক সুদৃঢ়, সমন্বিত ও নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

মন্দির/ অনুষ্ঠানস্থল কেন্দ্রিক নিরাপত্তা নির্দেশনাঃ

১। সকল বৌদ্ধ মন্দির ও তার আশ-পাশ এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে।
২। বৌদ্ধ মন্দির ও আশ-পাশ এলাকায় পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করা হবে।
৩। মন্দিরে প্রবেশের ক্ষেত্রে সকল দর্শনার্থীকে ম্যানুয়ালী ও আর্চওয়ে দিয়ে তল্লাশি করিয়ে প্রবেশ করানো হবে।
৪। মন্দিরের নিরাপত্তার জন্য মন্দির কর্তৃপক্ষ কর্তৃক পর্যাপ্ত সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করতে হবে এবং তাদের আলাদা পোশাক, আর্মড ব্যান্ড বা আইডি কার্ডের ব্যবস্থা করতে হবে।
৫। সকল ধরণের মাদকদ্রব্য, আতশবাজি ও পটকা ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা থাকবে।
৬। নিরাপত্তার স্বার্থে ফানুস উড়ানো থেকে বিরত থাকতে হবে।
৭। নামাজের সময় সকল ধরণের বাদ্যযন্ত্র বাজানো বন্ধ রাখতে হবে।
৮। সর্ব সাধারণের চলাচল স্বাভাবিক রাখার জন্য মন্দিরের আশপাশে কোন ভাসমান দোকান ও হকার বসতে দেয়া হবে না।
৯। নিরাপত্তার স্বার্থে মন্দির সংশ্লিষ্ট রাস্তায় পর্যাপ্ত বেরিকেড ব্যবস্থা রাখা হবে।
১০। সন্দেহভাজন কাউকে মন্দিরে প্রবেশের পূর্বেই তার পরিচয় নিশ্চিত হয়ে প্রবেশ করাতে হবে।
১১। বড় ব্যাগ, ব্যাক-প্যাক, পোটলা, ধারালো কোন বস্তু, দাহ্য পদার্থ নিয়ে মন্দির ও অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ সম্পূর্ণরুপে নিষিদ্ধ থাকবে।
১২। অনুষ্ঠানস্থল বোম্ব ও ডগ স্কোয়াড দিয়ে সুইপিং করানো হবে।
১৩। অগ্নি নির্বাপকের ব্যবস্থা হিসেবে পর্যাপ্ত ফায়ার টেন্ডার ও দ্রুত চিকিৎসার জন্য এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা রাখা হবে।
১৪। মন্দিরের নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশের সাথে সমন্বয় করে স্থানীয় সকল শ্রেণী পেশার প্রতিনিধি নিয়ে বুদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপন কমিটি গঠন করা হবে।
১৫। সাদা পোষাকে গোয়েন্দা পুলিশ নিয়োজিত থাকবে।
১৬। গোয়েন্দা সংস্থা কর্তৃক অগ্রিম সংবাদ সংগ্রহপূর্বক পোষাকী পুলিশকে সরবরাহ করা হবে।

শোভাযাত্রা কেন্দ্রিক নিরাপত্তা নির্দেশনাঃ

শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে ১৭ মে ২০১৯, শুক্রবার সকাল ০৯.০০ ঘটিকা বাংলাদেশ বৌদ্ধ সাংস্কৃতিক পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত শান্তি শোভাযাত্রা জাতীয় জাদুঘর, শাহবাগ থেকে শুরু হয়ে প্রেস ক্লাবে যেয়ে শেষ হবে এবং ১৮ মে ২০১৯, শনিবার সকাল ০৭.৩০ ঘটিকা ধর্মরাজিক বৌদ্ধ মহাবিহার কর্তৃক আয়োজিত শান্তি শোভাযাত্রা ধর্মরাজিক বৌদ্ধ মহাবিহার হতে শুরু হয়ে বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়াম, কমলাপুর হয়ে পুনরায় ধর্মরাজিক বৌদ্ধ মহাবিহারে গিয়ে শেষ হবে। শোভাযাত্রায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নিম্নলিখিত নির্দেশনা দিচ্ছে ডিএমপি।

১। শোভাযাত্রা শুরুর পূর্বে সকলকে তল্লাশি করে শোভাযাত্রায় প্রবেশ করানো হবে।
২। শোভাযাত্রা শুরুর পর পথিমধ্যে কাউকে নতুন করে শোভাযাত্রায় ঢুকতে দেয়া হবে না।
৩। পর্যাপ্ত স্বেচ্ছাসেবক দিয়ে শোভাযাত্রার চারপাশ বেষ্টনি দিয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।
৪। শোভাযাত্রায় কোন ধরণের ব্যাগ ও ব্যাক-প্যাক, দাহ্য পদার্থ, ধারালো বস্তু, আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে অংশগ্রহণ সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ থাকবে।

এছাড়াও অনুষ্ঠানস্থল ও শোভাযাত্রায় অপরিচিত কোন লোক বা অস্বাভাবিক কিছু দেখলে পুলিশকে অবহিত করাসহ বুদ্ধ পূর্ণিমার নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশের তল্লাশি কার্যক্রমে নগরবাসীকে সহায়তা করার জন্য ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা যাচ্ছে ।(ডিএমপি নিউজ)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *