ময়মনসিংহে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ১

ময়মনসিংহে দশম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে হামিদুল ইসলাম আকাশ (২৮) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত বুধবার নগরীর মাসকান্দা এলাকা থেকে ময়মনসিংহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী অভিযুক্ত আকাশকে আটক করে পুলিশ।

পরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়। তবে বিষয়টি লোক লজ্জার ভয়ে ভুক্তভোগীর পরিবার গোপন রাখলেও অভিযুক্তকে আটকের পর ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে।
নগরীর তনং ফাঁড়ির ইনচার্জ সজিব আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত ২৩ জানুয়ারি সকালে নগরীর মাসকান্দা এলাকার সেবা মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রের দু’তলার একটি কক্ষে নিয়ে পালক্রমে ধর্ষণ করে আকাশ ও নিরাময় কেন্দ্রের মালিক রাজিব। পরে আবারো গত রবিবার ওই স্কুল ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে চড়পারা নয়াপাড়া এলাকার একটি বাসায় নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনার পর বুধবার ভুক্তভোগির ভাই বাদি হয়ে কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা করেন। মামলার পরপরই অধসামী আকাশকে গ্রেফতার করা হয়। রাজিবকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

কোতোয়ালি মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার উজ্জ্বল কান্তি সরকার জানান, দশম শ্রেণির ওই স্কুলছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল স্থানীয় এক যুবকের। এক পর্যায়ে তাদের সর্ম্পক ভেঙ্গে যায়। এরপরও ওই যুবক স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করতেন। এ ঘটনাটি এলাকার বড় ভাই আকাশকে জানান স্কুলছাত্রী। বিষয়টি মীমাংসা করে দেওয়ার কথা বলে স্কুলছাত্রীকে গত ২৩ জানুয়ারি নগরের মাসকান্দা এলাকার সেবা মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে নিয়ে সেখানে আকাশ ও নিরাময় কেন্দ্রের মালিক রাজিব তাকে পালাক্রমে ধর্ষন করে। পরে গেল রবিবার আবারো ধর্ষণ করে ওই স্কুল ছাত্রীকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *