সংসদের প্রথম অধিবেশনে যোগ দিলেন এরশাদ

বিডি নিউজ আই ডেক্স :

সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেও অসুস্থ ছিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

রোববার কিছুটা সুস্থবোধ করায় প্রথমবার একাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে যোগ দিলেন তিনি।

বিরোধীদলীয় এই নেতা মাত্র ১৫ মিনিটের জন্য সংসদে ছিলেন। এরপর চলে যান। এরই মধ্যে বিরোধীদলীয় নেতার চেয়ারেও বসেন।

অসুস্থতার জন্য সংসদে হুইলচেয়ারে করে প্রবেশ করেন এরশাদ। বেরিয়েও যান একইভাবে।

জানা গেছে, রোববার বিকেল ৪টা ৩৫ মিনিটের দিকে এরশাদ সংসদ ভবনে এসে পৌঁছান। স্পিকার ড. শিরীন শারমীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ৪টা ৪০ মিনিটে অধিবেশন শুরু হয়।

১৫ মিনিট পর এরশাদ অধিবেশন কক্ষে প্রবেশ করে বিরোধীদলীয় নেতার চেয়ারে বসেন। ১৫ মিনিটের মতো অবস্থান করে তিনি সংসদ ভবন ত্যাগ করে বারিধারার বাসার উদ্দেশে রওনা দেন।

গাড়িতে করে সংসদ ভবনে এসে পৌঁছানোর পর হুইলচেয়ারে লিফটে সরাসরি বিরোধী দলের লবিতে যান এরশাদ।

লবিতে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর আবারও হুইলচেয়ারে করে অধিবেশন কক্ষে যান এরশাদ। চেয়ার থেকে নামিয়ে জিএম কাদের ও রাঙ্গা দু’পাশ থেকে এরশাদকে ধরে হাঁটিয়ে বিরোধীদলীয় নেতার চেয়ারে বসিয়ে দেন।

এ সময় এরশাদ অধিবেশনে থাকা সংসদ সদস্যদের উদ্দেশে হাত নেড়ে সালাম জানান।

সরকারি দলের সামনের সারিতে থাকা আওয়ামী লীগের সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, বেগম মতিয়া চৌধুরী, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালসহ কয়েকজন হাত তুলে এরশাদকেও সালাম জানান।

তবে, জাপার সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ রোববার সংসদে আসেননি। এরশাদের বাম পাশের আসনটিতেই রওশন বসেন। এরশাদ যতক্ষণ অধিবেশন কক্ষে ছিলেন ততক্ষণই রওশনের চেয়ারে বসে এরশাদের সঙ্গে কথা বলেন জিএম কাদের।

এরই ফাঁকে সাবেক তথ্যমন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ এসে একবার এরশাদের পাশে বসে তার কুশল জানতে চান।

জিএম কাদের, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, নাসরিন জাহান রত্না, মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী, পীর ফজলুর রহমান মিসবাহসহ জাপার এমপিরা এ সময় এরশাদের সঙ্গে ছিলেন।

গত ৩০ জানুয়ারি একাদশ সংসদের প্রথম অধিবেশন শুরু হয়। সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন থাকায় তিনি যোগ দিতে পারেননি। গত ৪ ফেব্রুয়ারি দেশে ফেরার পর রোববার অধিবেশনে যোগ দিলেন।

এর আগে একাদশ সংসদের সদস্যরা গত ৩ জানুয়ারি শপথ নিলেও অসুস্থ থাকায় এরশাদ ৬ জানুয়ারি হুইলচেয়ারে করে এসেই স্পিকারের রুমে শপথ নিয়েছিলেন।

বিডি নিউজ আই ডট কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *