হত্যাকান্ডের মিশনে থাকা আরো একজনকে গ্রেফতার

বিডি নিউজ আই, নারায়ণগঞ্জ; নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লায় সিদ্দিক মিয়া (৫৫) হত্যাকান্ডের ঘটনায় হত্যাকান্ডের মিশনে থাকা আরো একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ হত্যাকান্ডে গ্রেফতার হওয়া আবু বক্করের আদালতের দেয়া ১৬৪ ধারা জবানবন্দিতে নাম বলে যাওয়া চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী সালাউদ্দিন সালুকে (৩০) গ্রেপ্তার করা হয়।

সোমবার সকালে ফতুল্লার ভোলাইল শান্তিনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে সালাউদ্দিন সালুকে গ্রেফতার করা হয়। সোমবার দুপুরে এ মামলায় তাকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করে। সালাউদ্দিন সালু ফতুল্লার ভোলাইল শান্তিনগর এলাকার সফর আলীর ছেলে। এরআগে সিদ্দিক মিয়া হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় আবু বক্কর (২৯), বিপ্লব (২৮) ও মুজাকে (৩০)। তাদের মধ্যে আবু বক্কর সিদ্দিক মিয়াকে হত্যা করা দায়স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

মামলার তদন্তকারী অফিসার ফতুল্লা মডেল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) হাসানুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আবু বক্করের দেয়া জবানবন্দি মূলে মাদক ব্যবসায়ী সালাউদ্দিন সালুকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মাদকসহ ৯ টি মামলা রয়েছে। আর হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে সালাউদ্দিন সালুকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়।
প্রসঙ্গত গত ১৩ জুন বিকেলে ফতুল্লা ভোলাইল গেদ্দার বাজার এলাকাস্থ শহিদ মিয়ার বাড়িতে বসবাসরত সিদ্দিক মিয়ার রুমে আবু বক্কর সহ ৮ থেকে ৯ জন মাদকসেবী ইয়াবা সেবন করতে বসেন। এসময় সবাই ইয়াবা সেবন করছে কিন্তু সিদ্দিক মিয়াকে কেউ সেবন করতে দিচ্ছেনা। এতে সিদ্দিক মিয়া উত্তেজিত হয়ে উঠলে অন্যরা তার সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে ৮ থেকে ৯ জন মিলে সিদ্দিক মিয়াকে মারধর করে বুকে কাঠ ও বাঁশ দিয়ে এলোপাতারি আঘাত করে হত্যা শেষে বাড়ির পাশের জমির কাশবন ভিতরে লাশ গুম করার উদ্দেশে সেখানে ফেলে চলে যায়। নিহত সিদ্দিক ফতুল্লার দেওভোগ মুন্সীবাড়ি এলাকার মৃত. ফজর আলী মুন্সীর ছেলে। সে তার পরিবার নিয়ে ভাতিজা শহিদের বাড়িতে বসবাস করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *