নতুন ‘ভিডিও অ্যাপ’ আনল ফেসবুক

 অনেকেরই ছোট ছোট ভিডিও তৈরির শখ রয়েছে। এবার সেই শখ পূরণ করবে ফেসবুক। ভিডিও অ্যাপ “Lasso” লঞ্চ করল স্যোশাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুক। যেখানে ইউজাররা নিজের তৈরি ভিডিও শেয়ার করার সুযোগ পাবেন।

শুধু তাই নয়, ভিডিওটিকে আকর্ষণীয় বানাতে যোগ করা যাবে ফিল্টার এবং স্পেশাল এফেক্টস। ফেসবুক প্রডাক্ট ম্যানেজর অ্যান্ডি হুয়াং ট্যুইটারের মাধ্যমে জানান, ইতিমধ্যেই ফেসবুকের নতুন শর্ট-ফর্ম ভিডিও অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারছেন ইউএসবাসীরা।
প্রত্যেকেরই পছন্দ আলাদা আলাদা। আর বিষয়টিকে মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়েছে অ্যাপটিকে। যেখানে থাকছে ভিডিও এডিটিং টুলস। এছাড়া ইউজার ভিডিওটিকে ইন্টারেস্টিং বানাতে পছন্দের গান কিংবা টেক্সট অ্যাড করতে পারবেন। তবে, অ্যাপটির লঞ্চ নিয়ে কোন রকম প্রচার চালায়নি কর্তৃপক্ষ৷ বলা যায়, একপ্রকার চুপিসারেই অ্যাপটিকে লঞ্চ করা হয়েছে। অ্যাপটিতে শেয়ার করা সমস্ত ভিডিও এবং প্রফাইলস পাবলিক থাকবে।

ইউটিউব, স্ন্যাপচ্যাটের মত প্ল্যাটফর্মগুলিকে প্রতিযোগিতায় টেক্কা দিতেই ফেসবুক নিয়ে এল নতুন হাতিয়ার। এমনই মনে করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ। তথ্য জানাচ্ছে, প্রায় ৬৯ শতাংশ ইউএস টিনএজার স্ন্যাপচ্যাট ব্যবহার করে। ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৭২ শতাংশের মত।

অন্যদিকে, প্রতিযোগিতায় সর্বাধিক এগিয়ে রয়েছে ইউটিউব। ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৮৫ শতাংশ৷ অ্যন্ড্রয়েড এবং আইফোন, উভয় ইউজাররাই ফেসবুকের এই ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপটিকে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে, বিশ্ববাসী ঠিক কবে পেতে চলেছেন এই “Lasso” অ্যাপ? বিষয়টি এখনও অস্পষ্ট।

সারা বিশ্বে ফেসবুক ইউজারের সংখ্যা চোখে পড়ার মত। সেই সংখ্যাকেই আরও বাড়াতে নিত্যনতুন আকর্ষণ এনে চলেছে সাইটটি। তবে, এখানে গ্রাহকদের চাহিদাটিও গুরুত্বপূর্ণ বিষয়৷ ফেসবুক সর্বদা সেই দিকটিকে মাথায় রেখেই নিয়ে এসেছে নয়া ফিচারগুলিকে। আর, সেজন্যই জনপ্রিয়তা ছাড়িয়েছে নির্দিষ্ট মাত্রাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *